দিল্লিতে মমতার নারী-ব্রিগেড! ১১ মহিলা সাংসদ নিয়ে সংসদে মমতার ‘টিম’


শঙ্খ ভট্টাচাৰ্য :- ২০১৯ সালের রেকর্ড ধরে রাখল তৃণমূল কংগ্রেস| এবারও এ রাজ্য থেকে নারী-ব্রিগেড চলেছে সংসদের পথে | রাজ্যের ৪২টি লোকসভা আসনের মধ্যে ২৯টি তৃণমূলের| তার মধ্যে ১১জনই নারী | এর মধ্যে তৃণমূলের নতুন মুখ ৫ জন | রচনা বন্দোপাধ্যায়, জুন মালিয়া, সায়নী ঘোষ, শর্মিলা সরকার, মিতালি বাগ |বাকি ছয় জন পুরোনো শতাব্দী রায়, কাকলি ঘোষ দস্তিদার, মালা রায়, সাজদা আহমেদ, প্রতিমা মণ্ডল ও মহুয়া মৈত্র‍ | রাজ্য থেকে বিজেপির কোনও মহিলা সাংসদ প্রতিনিধি নেই |

লোকসভা, বিধানসভা থেকে পুরসভা বা পঞ্চায়েত- নির্বাচন যে স্তরেরই হোক না কেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় প্রার্থী হিসাবে সবসময়ই এগিয়ে রাখেন মহিলাদের | রাজ্যসভাতেও তাঁর মহিলা প্রতিনিধি একাধিক ২০১৯-য়ের তুলনায় ২০২৪ সালের লোকসভা ভোটে বেড়েছে তৃণমূলের আসন সংখ্যা, বাড়ল মহিলা সাংসদও | সপ্তদশ লোকসভায় জোড়-ফুলের প্রতীকে লোকসভায় পৌঁছেছিলেন ৯ জন মহিলা সাংসদ | এবার সেই সংখ্যা বেড়ে হয়েছে ১১ | এবারের লোকসভা ভোটে ১২ জন মহিলাকে প্রার্থী করেছিল তৃণমূল কংগ্রেস | তাঁদের মধ্যে এগারো জন জয়ী হয়েছেন,শতাংশের হিসাবে ৩৮ শতাংশ | অন্যদিকে, মহিলা সংরক্ষণ বিল পাশ করানো বিজেপিতে মহিলা সাংসদ রয়েছে মাত্র ১২ শতাংশ |

এবার বাংলা থেকে ১১ জন মহিলা যাচ্ছেন সংসদে

  • কলকাতা দক্ষিণে মালা রায় |
  • বারাসতে কাকলি ঘোষ দস্তিদার |
  • উলুবেড়িয়া সাজদা আহমেদ |
  • বীরভূমে শতাব্দী রায় |
  • জয়নগরে প্রতিমা মণ্ডল |
  • কৃষ্ণনগরে মহুয়া মৈত্র |
  • যাদবপুরে সায়নী ঘোষ |
  • বর্ধমান পূর্বে শর্মিলা সরকার |
  • মেদিনীপুরে জুন মালিয়া |
  • হুগলিতে রচনা বন্দ্যোপাধ্যায় |
  • আরামবাগে মিতালী বাগ |

অন্যদিকে, বিজেপির মহিলা মুখ এই রাজ্য থেকে লকেট চট্টোপাধ্যায় ও দেবশ্রী চৌধুরী যাঁরা সাংসদ ছিলেন তাঁরা হেরে গেলেন |হেরেছেন শ্রীরূপা মিত্র চৌধুরী ও অগ্নিমিত্রা পাল | রেখা পাত্র ও পিয়া সাহা তাঁরা দু’জনেই হেরে গিয়েছেন | হেরেছেন রাজমাতা অমৃতা রায়ও |বিধানসভায় তৃণমূল সদস্যদের ৩৩ শতাংশের বেশি মহিলা | বিভিন্ন স্তরের জনপ্রতিনিধিত্বেই শুধুমাত্র মহিলাদের গুরুত্ব দেওয়া নয়, বর্তমান এবং আগামী দিনের মহিলা ভোটারদের দিকেও বিশেষ নজর দিয়ে থাকেন রাজ্যের মহিলা মুখ্যমন্ত্রী | প্রথমবার ক্ষমতায় আসার পরই কন্যাশ্রী, রূপশ্রীর মতো প্রকল্প ঘোষণা করেন মমতা বন্দোপাধ্যায় | রাজ্যে শেষ বিধানসভা ভোটের আগে তাঁর ‘লক্ষ্মীর ভাণ্ডার’ প্রকল্প অনেকের কাছেই ‘মাস্টারস্ট্রোক’ বলে স্বীকৃত| এই লোকসভা ভোটেও লক্ষ্মীর ভাণ্ডার অন্যতম কার্যকরী হয়েছে তৃণমূলের |


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

3 × five =