দুদিন ব্যাপী ১৬ টি দলের ‘পাওয়ার বল প্রতিযোগিতা’র আয়োজনে ‘ধূলাগড়ী ফুটবল এসোসিয়েশন’! মাঠে দর্শক সমাগম ছিল চোখে পড়ার মতো


শঙ্খ ভট্টাচার্য :- শীতের মরসুমে রাজ্য ব্যাপী ক্রীড়া প্রতিযোগিতা, ফুটবল, ক্রিকেট টুর্নামেন্ট অনুষ্ঠিত হচ্ছে | আর তাদের সাথে পাল্লা দিয়ে হাওড়ার ধূলাগড়ে ‘ধূলাগড়ী ফুটবল এসোসিয়েশন’ এর পরিচালনায় ১৫ এবং ১৬ তারিখ অনুষ্ঠিত হল ষষ্ঠ ‘পাওয়ার বল প্রতিযোগিতা’|আর ক্রীড়া প্রতিযোগিতা রয়েছে ১৭ তারিখ |

ধূলাগড় উত্তর মল্লিক পাড়ায় দুদিন ব্যাপী ১৬ টি দলের মধ্যে পাওয়ার বল প্রতিযোগিতায় জয়ী দলকে ট্রফি ও ৬০ হাজার টাকা এবং রানার্স আপ দলকে ট্রফি ও ৪০ হাজার টাকা পুরস্কার দেওয়া হবে |এই পাওয়ার বল প্রতিযোগিতা দেখতে মাঠে ভীড় জমিয়েছিলেন আট থেকে আশি সকলেই | এই খেলাকে ঘিরে মাঠে দর্শকদের উদ্দীপনাও ছিল চোখে পড়ার মতো | এই খেলায় প্রতিযোগিতায় মধ্যে নজর কেড়েছিল এক দলের এক গোলকিপার, যিনি শারীরিক প্রতিবন্ধকতাকে উপেক্ষা করে খেলেছেন এবং মানুষের প্রশংসা কুড়িয়েছেন |

প্রথম দিনের খেলায় উদ্বোধক ছিলেন ব্লক সভাপতি অমৃত বোস, উপস্থিত ছিলেন সাঁকরাইলের আই সি বিশ্বজিৎ ব্যানার্জি ও ধূলাগড়ের ওসি |

২ য় দিনের খেলায় মুখ্য আকর্ষণ ছিল বিধায়িকা প্রিয়া পাল এর উদ্বোধনী ম্যাচে উপস্থিতি | এদিন এলাকার সমস্ত শিশুদের হাতে আইসক্রিম উপহার দেন প্রিয়া পাল ও জেলা পরিষদের কর্মাধ্যক্ষ নাসিমা কাজী, ফাইনাল খেলা রাত ১২ টার পর, কিন্তু দর্শক উপচে পড়বে বলে দাবি খেলা কর্মকর্তাদের একজন সাদ্দাম লস্কর এর |

এই খেলার সভাপতি তথা পঞ্চায়েত উপপ্রধান আক্তার লষ্কর জানান,এখনও পাওয়ার বল প্রতিযোগিতায় এতটা উন্মাদনা রয়েছে যা এই মাঠে না এলে বোঝা সম্ভব নয় |
সাঁকরাইল কেন্দ্র তৃণমূল কংগ্রেসের সভাপতি অমৃত বোস জানান, পাওয়ার বল প্রতিযোগিতাকে ঘিরে ধূলাগড়ের মানুষের এই জমায়েত সত্যিই চোখে পড়ার মতো |


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

19 − one =