পুরসভার কমিশনারকে ঘেরাও করে বিক্ষোভ অস্থায়ী স্বাস্থ্যকর্মীদের

মফিজুল খাঁন : তিরিশ দিনের কাজ হঠাৎ করে দশ দিন করে দেওয়ার বিজ্ঞপ্তি জারি হতেই ধুন্ধুমার কান্ড বেঁধে যায় পুরসভায়। ক্ষোভে ফেটে পড়েন স্বাস্থ্য কর্মীরা। শুধু কমিশনারকে ঘেরাও করেই নয়, এরপর চলে রাস্তা অবরোধও।

আন্দোলন চলাকালীন বিজেপি যুব মোর্চা নেত্রী দুর্গা সিং দলবল নিয়ে এলে তাদের ওপর চড়াও হয়ে তাদেরকেও মারধর করে স্বাস্থ্য কর্মীরা।

আন্দোলনকারীরা জানান, বিজেপি এখানে ঝামেলা বাঁধাবার চেষ্টা করছিল তাই মারধর করা হয়েছে। এই ঘটনায় বিজেপি নেত্রী হাওড়া থানায় অভিযোগ দায়ের করেছে। হাওড়া পুরসভার ৬৬টি ওয়ার্ডে প্রায় তিনহাজার অস্থায়ী কর্মী কাজ করে।তাদের কাজ কমিয়ে দেবার সিদ্ধান্ত মেনে নিতে না পেরে বিক্ষোভ শুরু হয়। পুরসভার পক্ষ থেকে সদুত্তর না মেলায় কমিশনার বিজিন কৃষ্ণার অফিসে বিক্ষোভ দেখান তারা।

উল্লেখ্য, ২০১৪ সালে তৎকালীন পুরসভার কাউন্সিলর ও মেয়রের উদ্যোগে কাজে যোগ দিয়েছিলেন এই কর্মীরা। তার পর থেকেই ওয়ার্কাররা ১০০ টাকা রোজ এবং সুপারভাইজাররা ১২০ টাকা রোজ হিসাবে পেতেন। যদিও সেই টাকা নিয়মিত ছিল না বলেই কর্মীদের অভিযোগ। কিন্তু এবার কাজের দিনই এক ধাক্কায় ২০ দিন কমে যাওয়ায় কমিশনারকে ঘেরাও করেন তারা। নিগমের তরফে যথাযথ পদক্ষেপ না নিলে নবান্ন ঘেরাও হবে বলে হুঁশিয়ারি বিক্ষোভকারীদের।বিকেলের দিকে পুরকমিশনার ও প্রাক্তন মেয়র পারিষদরা বৈঠক করে জানিয়ে দেন যে, এপ্রিল ও মে মাসে তিরিশ দিনের টাকা দেওয়া হবে। এরপর কি করা হবে তারজন্য ভোটের পর বৈঠক করে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। যাতে তিরিশ দিনই কাজ তারা পান সেই চেষ্টাই করা হবে। পুরসভার এই সিদ্ধান্তে আশ্বস্ত হয়ে আন্দোলন তুলে নেন অস্থায়ী স্বাস্থ্যকর্মীরা।পুরোপুরি খুশি না হলেও আশার আলো দেখছেন তারা।।।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

six + 16 =