প্রেরণা’র প্রেরণা

মফিজুল খাঁন : দাদু ও দিদিমার সাহায্যে ও নিজের চেষ্টায় উচ্চ মাধ্যমিকে ৪৫০ নম্বর নিয়ে পাশ করেছিলো উলুবেরিয়ার অতি গরিব পরিবারের মেয়ে কামরুন্নেসা। বাবার সাহায্য সহযোগিতা থেকে সে চিরকাল বঞ্চিতই থেকে গেছে। অভাব অনটনের মধ্যেই সে বড় হয়েছে। এভাবেই মাধ্যমিক থেকে উচ্চ মাধ্যমিক পড়ার পরে এখন কলেজে ভর্তি হয়েছে। কলেজ থেকে পাওয়া সামান্য স্কলারশিপের টাকাতেই অনেক কষ্টে কোনরকমে পড়াশুনা চালিয়ে যাচ্ছিল।

তার পাশে এসে দাঁড়িয়েছে প্রেরণা নামের একটি অরাজনৈতিক সংগঠন। তার আর্থিক অবস্থা ও পড়াশোনার খরচ চালানোর দায়িত্ব নিয়ে তার পাশে দাঁড়ানোর আশ্বাস দিয়েছেন প্রেরণার সদস্য মনিরুল ইসলাম। নিজের পড়াশুনা চালিয়ে যেতে প্রেরণাকে পাশে পেয়ে খুশি।

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

13 + 2 =