বিধ্বস্ত যাত্রীদের জন্য বাস, রাতে শিয়ালদায় হেল্পডেস্ক, বিশেষ ব্যবস্থা রাজ্যের!রেলের সিগনালিং ব্যবস্থা নিয়ে প্রশ্ন তুললেন মুখ্যমন্ত্রী


দেবরীনা মণ্ডল সাহা :-কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস দুর্ঘটনার খবর পেয়েই উত্তরবঙ্গ যাওয়ার সিদ্ধান্ত নিয়েছিলেন মুখ্যমন্ত্রী মমতা বন্দ্যোপাধ্যায়। সোমবার বিকেলেই তিনি উত্তরবঙ্গে পৌঁছন | সাংবাদিকদের মুখোমুখি হয়ে মমতা জানান, দুর্ঘটনাগ্রস্তদের বাড়ি ফেরার ব্যবস্থা রাজ্য সরকারের | শিয়ালদহ স্টেশনে একাধিক বাস থাকবে রাতে বলে জানিয়েছেন তিনি | সোমবার সকালে রাঙাপানি এবং নীচবাড়ি স্টেশনের মাঝে ভয়াবহ দুর্ঘটনার কবলে পড়েছিল শিয়ালদহগামী কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস | সরকারি সূত্রে খবর, এই ঘটনায় ৮ জনের মৃত্যু হয়েছে | তবে দুপুর সাড়ে ১২টার কিছু পরে, দুর্ঘটনাগ্রস্ত চারটি বগি বাদ রেখে ঘটনাস্থল থেকে ছেড়ে দেয় ওই কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস | রাত ২ টোর পর সেই ট্রেনের শিয়ালদহ পৌঁছনোর কথা | মুখ্যমন্ত্রী উত্তরবঙ্গ থেকে জানিয়েছেন, রাত ১২টায় শিয়ালদহে স্টেশনে হেল্প ডেস্ক চালু রাখা হবে | সেই হেল্প ডেস্কের দায়িত্বে কলকাতার মেয়র ফিরহাদ হাকিম এবং রাজ্যের পরিবহণ মন্ত্রী স্নেহাশিস চক্রবর্তী | এদিন উত্তরবঙ্গ মেডিক্যাল কলেজ ও হাসপাতালে গিয়ে আহতদের সঙ্গে দেখা করেন মুখ্যমন্ত্রী | তিনি জানান, ‘মোটামুটি যাঁরা এখানে আছে, যেটা দেখলাম একটি কেস ছাড়া বাদ বাকী স্থিতিশীল আছে | সবাইকে ঠিকমতো চিকিৎসা করা, যোগাযোগ করিয়ে দেওয়া, বাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার ব্যবস্থা করা সবটাই আমরা করছি |’রেল সূত্রে খবর, দুর্ঘটনাগ্রস্ত কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেসটি ছ’টি এসি কামরা-সহ মোট ১৫টি বগি নিয়ে ইসলামপুরের আলুয়াবাড়ি রোড স্টেশনে পৌঁছয় সন্ধ্যা সাড়ে ৬টা নাগাদ | স্টেশনে পৌঁছতেই ট্রেনের যাত্রীদের কেক, জল, বিস্কুট ও রান্না করা খাবার দেওয়া হয় রেলের পক্ষ থেকে | সেইসময় আলুয়াবাড়ি স্টেশনে যান তৃণমূলের উত্তর দিনাজপুর জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল, যুব তৃণমূলের জেলা সভাপতি কৌশিক গুণ, তৃণমূল নেতা বিক্রম দাস, যুব তৃণমূল নেতা মহম্মদ বাবলুরা |

অন্যদিকে মৃতদের পরিবার পিছু ১০ লক্ষ টাকা ও আহতদের ২.৫ লক্ষ টাকা ও অল্প আহতদের ৫০ হাজার টাকা ক্ষতিপূরণ দেওয়ার কথা ঘোষণা করেছে কেন্দ্র | পাশাপাশি পিএম ফান্ড থেকেও ক্ষতিপূরণ ঘোষণা করা হয়েছে | মৃতদের পরিবার পিছু ২ লক্ষ টাকা ও আহতদের ৫০ হাজার টাকা করে ক্ষতিপূরণ দেওয়া হবে প্রধানমন্ত্রীর ফান্ড থেকে | বাংলায় রেল দুর্ঘটনায় নিয়ে শোকস্তব্ধ প্রধানমন্ত্রী | স্বজনহারাদের পরিবারের প্রতি সমবেদনা জানিয়ে এক্স হ্যান্ডেলে পোস্ট করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদী |

এদিন মুখ্যমন্ত্রী বলেন, ‘আমি যখন রেলমন্ত্রী ছিলাম, তখন দুই-তিনটে ঘটনা দেখেছিলাম | তার আগে গাইসাল দুর্ঘটনাও দেখেছিলাম আমি নিজে মুম্বইয়ে কঙ্কন রেলওয়ের কাজে গিয়ে, অ্যান্টি কোলিশন ডিভাইস তৈরি করি এবং চালু করি | সংঘর্ষ আটকে দিয়েছিলাম | কিন্তু এখন রেলে কী হচ্ছে,তা তো জানি না’ | কীভাবে একই লাইনে চলে এল কাঞ্চনজঙ্ঘা এক্সপ্রেস ও মালগাড়ি, উদ্ধার কাজের পাশাপাশি এই নিয়ে সারাদিনই চলেছে কাটাছেঁড়া | সিগন্যালের ত্রুটি নাকি মালগাড়ির চালকের অন্যমনস্কতা,কী কারণে দুর্ঘটনা, তার ময়নাতদন্ত চলছেই | তবে রেলের একটি সূত্রের দাবি, সোমবার ভোর সাড়ে ৫টা থেকে রাঙাপানি এবং আলুয়াবাড়ির মধ্যে স্বয়ংক্রিয় সিগন্যাল ‘অকেজো’ ছিল,তাই ধীর গতিতে চলছিল ট্রেন |


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

twelve − 5 =