হাওড়ায় চব্বিশের নির্বাচনে তৃণমূল-বিজেপি-সিপিএমের লড়াইয়ের সাক্ষী হতে চলেছে হাওড়া!তৃণমূলের প্রসূন নাকি বিজেপির রথীন,কে এগিয়ে? দুই প্রবীণের বিপক্ষে তরুণ মুখ সিপিএমের সব্যসাচী


শঙ্খ ভট্টাচাৰ্য :- ২০ মে হাওড়ার লোকসভা নির্বাচন| আর হাওড়া সদর কেন্দ্রে নির্বাচনে কোন দলের রাজনৈতিক প্রার্থী এগিয়ে সে বিষয়ে চুলচেরা বিশ্লেষণে না গিয়ে বলা যেতে পারে,বিগত দেড় মাসের প্রচারে জনসংযোগের দিক থেকে কোথাও এগিয়ে বিজেপি প্রার্থী রথীন চক্রবর্তী | আবার বলা যেতে পারে,কোথাও বিগত ৩ বারের সাংসদের নিরিখে এগিয়ে তৃণমূল কনগ্রেসের প্রসূন ব্যানার্জী| অন্যদিকে লড়াইয়ে রয়েছেন রাজনীতিতে নবাগত আইনজীবী সিপিএমের সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায় | অনেকেই বলছেন,হাওড়ার লড়াই এবার ত্রিমুখী |

কলকাতার পার্শ্ববর্তী জেলা হাওড়ার একটি লোকসভা কেন্দ্র হাওড়া | এই লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত ৭টি বিধানসভা আসনই হাওড়া জেলার | এই লোকসভা কেন্দ্রে ২৫ শতাংশের বেশি অবাঙালি ভোটার রয়েছেন | ১৯৫২ সাল থেকে ১৯৯৮ পর্যন্ত এই লোকসভা কেন্দ্র কখনও কংগ্রেস কখন বামেদের দখলে ছিল | ১৯৯৮ সালে প্রথমবার এখানে তৃণমূল প্রার্থী জয়ী হন | বছর ঘুরতে না ঘুরতেই আসনটি পুনরুদ্ধার করে সিপিএম | তবে ২০০৯ সাল থেকে এই আসনটি বাংলার শাসকদল তৃণমূলের দখলে | এখানকার বর্তমান সাংসদ প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায় |হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের অন্তর্গত সাতটি বিধানসভা আসন হল- বালি, হাওড়া উত্তর, হাওড়া মধ্য, শিবপুর, হাওড়া দক্ষিণ, সাঁকরাইল এবং পাঁচলা | একুশের বিধানসভা নির্বাচনে সাতটি আসনেই জয়লাভ করেন তৃণমূল প্রার্থীরা |

মোহনবাগানের সর্বকালীন সেরা একাদশে থাকা অন্যতম প্রসিদ্ধ ফুটবলার প্রসূন বন্দ্যোপাধ্যায়কে এবারও প্রার্থী করেছে তৃণমূল কংগ্রেস | হ্যাটট্রিক হয়েই গিয়েছে| চতুর্থবার কি তিনি সংসদে যাবেন? রায় দেবেন হাওড়াবাসী | তাঁর বিরুদ্ধে বিজেপি দাঁড় করিয়েছে তৃণমূলত্যাগী পেশায় চিকিৎসক রথীন চক্রবর্তীকে | সিপিএম প্রার্থী করেছে সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায়কে | প্রসূনকে টিকিট দেওয়ার বিরোধিতা করে সরব হয়েছিলেন মমতা বন্দ্যোপাধ্যায় ভাই স্বপন বন্দ্যোপাধ্যায় | তার জেরে ক্ষুব্ধ মমতা জানিয়ে দেন, ভাইয়ের সঙ্গে কোনও সম্পর্ক নেই তাঁর | এখন দেখার ২০০৯ সাল জেতা আসন তৃণমূল ধরে রাখতে পারে কি না?
তবে, হাওড়া পুরসভার ভোট না হওয়া নিয়েও কিছু মানুষের মধ্যে ক্ষোভ রয়েছে | হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের সাতটি বিধানসভার মধ্যে পাঁচটি রয়েছে হাওড়া পুরসভা ও বালি পুরসভা এলাকায় | ছয় বছর ধরে পুরভোট বকেয়া থাকায় পরিষেবা নিয়ে নানা জায়গায় অভিযোগ রয়েছে | বালি, উত্তর হাওড়া, মধ্য হাওড়া, শিবপুর ও দক্ষিণ হাওড়া এই পাঁচটি বিধানসভা কেন্দ্রের মানুষের রায়দানই বড় ফ্যাক্টর হবে বলেই মনে করছে রাজনৈতিক মহল |

অন্যদিকে, হাওড়া পুরসভার প্রাক্তন মেয়র বিশিষ্ট হোমিয়োপ্যাথি চিকিৎসক রথীন চক্রবর্তী এবার বিজেপির প্রার্থী | এবার হাওড়ার ভূমিপুত্র-এর উপরেই ভরসা রেখেছে বিজেপি | শহরাঞ্চলগুলিতে বেআইনি নির্মাণ ও পুকুর ভরাটের মতো, বেআইনি টোটো দাপট, পুর পরিষেবা নিয়ে অসন্তোষ, একাধিক কল কারখানা বন্ধ হয়ে যাওয়া এরকম একাধিক ইস্যুতে শান দিচ্ছে বিজেপি|

দলের চিরাচরিত ধারায় বাড়ি বাড়ি, পাড়ায় পাড়ায়, গলিতে গলিতে গিয়ে প্রচার করছেন হাওড়া লোকসভা কেন্দ্রের সিপিআইএম প্রার্থী সব্যসাচী চট্টোপাধ্যায় | বস্তির গলিতে গিয়ে টুল পেতে বসে কথাও বলেছেন বাসিন্দাদের সঙ্গে | তৃণমূল ও বিজেপি দুই দলের বিরুদ্ধেই হাওড়ার মানুষদের বঞ্চনার কথা প্রচারের মধ্যে তুলে ধরেছেন হাইকোর্টের আইনজীবী সব্যসাচী |
তবে শুধু মুখে প্রচার নয় | হাওড়ায় নিকাশির সমস্যা, বেপরোয়া নগরায়ণ নিয়েও সরব তিনি | এর সঙ্গেই বৃক্ষরোপণ করে পরিবেশ সচেতনতার বার্তাও দিয়েছেন কংগ্রেস সমর্থিত জোট প্রার্থী | দুই প্রবীণ প্রতিপক্ষের আড়ালে হারিয়ে না গিয়ে প্রচারে আম জনতার কথা তুলে ধরাকেই পাখির চোখ করেছেন তিনি |

এখন হাওড়াবাসী কাকে তাঁদের আগামী সাংসদ হিসাবে দেখতে চায় তার উত্তর মিলবে ৪ ঠা জুন |


মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না।

17 − 8 =