ছোট বোটে ইংলিশ চ্যানেল পেরনোর চেষ্টা, জলে ডুবে মৃত্যু ২৭ অনুপ্রবেশকারীর

  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

নিজস্ব প্রতিবেদন: ইংলিশ চ্যানেলে ফ্রান্স থেকে ব্রিটেনে  যাওয়ার পথে নৌকা ডুবে অন্তত ২৭ জন যাত্রীর মৃত্যু হয়েছে বলে জানা গিয়েছে। ২০১৪ সালের পর থেকে এটিই বিশ্বের অন্যতম ব্যস্ত এই চ্যানেলের সবচেয়ে মর্মান্তিক দুর্ঘটনা বলে জানা যাচ্ছে।

স্থানীয় সময় অনুযায়ী ফ্রান্সের কালাই উপকূলের কাছে বুধবার সন্ধ্যা নাগাদ ওই দুর্ঘটনা ঘটেছে। একটি মাছ ধরার নৌকা প্রথম নদীতে মৃতদেহ ভাসতে দেখে অ্যালার্ম বাজিয়ে প্রশাসনের দৃষ্টি আকর্ষণ করে। পরে প্রকাশ্যে আসে দুর্ঘটনার বিষয়টি। ফ্রান্সের তরফে প্রাথমিক ভাবে জানিয়েছিল ৩১ জনের মৃত্যু হয়েছে। পরে তা কমিয়ে ২৭ করা হয়।

এদিকে দুর্ঘটনাকে ঘিরে ফ্রান্স ও ব্রিটেনের মধ্যে পারস্পরিক দোষারোপ শুরু হয়েছে। দুই দেশের মধ্যবর্তী এই জলপথ দিয়ে বেআইনি অনুপ্রবেশকারীরা যাতায়াত করে বলে দীর্ঘদিন ধরেই অভিযোগ রয়েছে। জানা গিয়েছে, সাধারণত পাচারকারীরা ডিঙিগুলি অতিরিক্ত মানুষে বোঝাই করেই যায়। এদিনও তেমনটাই হওয়ায় দুর্ঘটনা ঘটে গিয়েছে। ব্রিটেনের প্রধানমন্ত্রী বরিস জনসন জানিয়েছেন, দুর্ঘটনার অভিঘাতে তিনি হতবাক এবং আতঙ্কিত। পাশাপাশি তিনি ফ্রান্সকে এই ধরনের বেআইনি যাতায়াত রুখতে কড়া হওয়ার আরজিও জানিয়েছেন।

এদিকে পালটা অভিযোগ ফ্রান্সের প্রেসিডেন্ট ইমানুয়েল ম্যাক্রোঁরও। এই ধরনের ঘটনাকে রাজনৈতিক রং না দেওয়ার জন্য তিনি অনুরোধ করেছেন বরিসকে। তাঁর কথায়, ”ফ্রান্স মোটেই চায় না ইংলিশ চ্যানেল কবরখানায় পরিণত হোক।” অন্যদিকে ফ্রান্সের অভ্যন্তরীণ মন্ত্রী জেরাল্ড ড্যারমানিন জানিয়েছেন, ব্রিটেনকেও এই ধরনের দুর্ঘটনায় দায় নিতে হবে।

উল্লেখ্য, সম্প্রতি ইংলিশ চ্যানেল দিয়ে ছোট ছোট নৌকায় হাজার হাজার মানুষ ব্রিটেনে গিয়েছেন বলে জানা গিয়েছে। ব্রিটেনের সরকারি তথ্য বলছে, কেবল নভেম্বরেই এই ধরনের ১৭৯টি নৌকা অনুপ্রবেশকারীদের ব্রিটেনে পৌঁছে দিয়েছে। এই বেআইনি পারাপার ঘিরে দীর্ঘদিন ধরেই আশঙ্কা তৈরি হচ্ছিল। অবশেষে ঘটে গেল মর্মান্তিক দুর্ঘটনা।


  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  
  •  

মন্তব্য করুন

আপনার ই-মেইল এ্যাড্রেস প্রকাশিত হবে না। * চিহ্নিত বিষয়গুলো আবশ্যক।

3 × 1 =